১৬ই আগস্ট, ২০২০ ইং, রবিবার

এবার ভারতীয় নারীকে তুলে নিয়ে গেল নেপাল পুলিশ

আপডেট: জুলাই ২৫, ২০২০

| পিবিএন ডেস্ক

ভারতের দখলকৃত কয়েকটি অঞ্চল নিজেদের মানচিত্রে অন্তর্ভুক্তি। নেপালের জনগণ কর্তৃক ভারতের সীমান্ত পিলার গুঁড়িয়ে দেওয়া। একাধিকবার সীমান্তে গুলি চালানোর মত দুঃসাহস দেখিয়েছে নেপাল। এবার নেপালের পুলিশ সন্তান-সহ এক ভারতীয় নারীকে আটক করায় বিহার সীমান্তে প্রবল উত্তেজনা ছড়িয়েছে।

শুধু তাই নয়, এই নিয়ে বচসার সময় নেপালের পুলিশ গুলিও চালায় বলে জানা গেছে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের পূর্ব চম্পারণ জেলার গোধাশান থানার অন্তর্গত খারসালওয়া এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার খারসালওয়া এলাকার বাসিন্দা ওই নারী সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে ভারত-নেপাল সীমান্তের কাছাকাছি জায়গায় ঘাস কাটছিলেন।

আচমকা সেখানে হাজির হয় নেপাল পুলিশের কিছু সদস্য। ওই নারীকে ঘাস কাটতে বারণ করে। নারী তাদের কথার প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, তিনি ভারতীয় ভূখণ্ডের মধ্যেই রয়েছেন। এই কথা শুনেই ওই পুলিশকর্মীরা তাকে বেধড়ক মারধর করে। তারপর সন্তানসহ তাকে নেপালের সীমান্তের মধ্যে থাকা পুলিশ পোস্ট তুলে নিয়ে যায়।

এই ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই বিহারের খারসালওয়া এলাকার মানুষ সীমান্তের কাছে গিয়ে প্রতিবাদ জানাতে থাকেন। শুরু হয় তুমুল গন্ডগোল। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে নেপালের পুলিশকর্মীরা গুলিও চালায় বলে অভিযোগ।

খবর পেয়ে পূর্ব চম্পারণের পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে ও সন্তানসহ নারীকে উদ্ধার করে।

এ প্রসঙ্গে পূর্ব চম্পারণের পুলিশ সুপার নবীনচন্দ্র ঝা বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নারী ও তার সন্তানকে উদ্ধার করা হয়েছে। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে এলাকায় প্রচণ্ড উত্তেজনা রয়েছে। কেন ওই নারীকে নেপাল পুলিশ আটক করেছিল তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

এর আগে ভারতের দখলকৃত কয়েকটি অঞ্চল নিজেদের মানচিত্রে অন্তর্ভুক্তি করে নেপাল। নেপালের জনগণ কর্তৃক ভারতের সীমান্ত পিলার গুঁড়িয়ে দেওয়া। একাধিকবার সীমান্তে গুলি চালানোর মত দুঃসাহসও দেখিয়েছে নেপাল।