১৫ই জুলাই, ২০২০ ইং, বুধবার

ওই আকাশে ভালো থেকো মা, ইতি তোমার ছোট্ট রুহি!

আপডেট: মে ১০, ২০২০

| ফিচার-মতামত

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯; আমার আদর আর শাসন করার সব থেকে শক্ত হাত দু’টো আমার থেকে হারিয়ে যায়। জীবনে এই প্রথম ও শেষ বার আমাকে না বলে আমার মা চলে যায় বহুদূর। সেই যে গেলো, আর এলো না!

আমরা দুই বোন এক ভাই। আমি মেঝ। মা’র খুব স্বপ্ন ছিলো আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়বো। আমারো আত্মবিশ্বাস ছিলো আমি পারবো। কিন্তু পরীক্ষায় মাত্র ক’দিন আগে মা যখন বিদায় নিলো, জীবনটা কেমন যেন এলোমেলো হয়ে গেলো। গুরুত্বহীন একটা মানুষের প্রভাব এতোটা ছিলো, ভেবেও দেখিনি আগে কখনো!

মা’কে হারানোর পর অনেক দায়িত্ব এসে পড়লো আমাদের উপর। মায়ের তুলনায় খুব সামান্য কাজ করে যখন খুব ক্লান্ত হয়ে পড়ি, তখন খুব ইচ্ছে হয়, মা কে যদি আবার ফিরে পেতাম৷ আমি জড়িয়ে ধরে বলতাম, ধন্যবাদ মা, আমাদের বটবৃক্ষ হয়ে থাকার জন্য। তবে তা বলার সুযোগ আর দিলে না মা!

এখনো মনে পড়লে আমার চোখে ভেসে ওঠে মায়ের চেহারাটা। মা খুব রাগি ছিলেন। একবার একটা গোলাপ কিনে এনেছিলেন মায়ের জন্য, বলেছিলাম ‘ভালোবাসি’। সেবার অনেক জোরে ধমক দিয়েছিলেম মা। রাগের অভিনয় ধরলেও আমি তো জানি কতোটা খুশি হয়েছিলো না।

এখনো মাঝে মাঝে ভুলে যাই তুমি নাই। আমার এখনো অবিশ্বাস্য লাগে। এখনো মনে হয় তুমি আমার চারপাশেই ঘুরাঘুরি করছো। আমি প্রতিটা কাজে তোমাকে খুব মিস করি না। বিশেষ দিনগুলোতে সবাই যখন মা কে উইশ করে, আমি তখন চুপ করে একা একা বসে থাকি আর ভাবি তুমি আমার পাশেই আছো।

এভাবে সারা জীবন আমাদের পাশে থেকো মা। আমরা তোমাকে খুব মিস করি। মাঝে মাঝে আমার স্বপ্নে এসো। গল্প করবো। জান্নাতে ভালো থেকো মা।

আমাদের আবার দেখা হবে মা! আবার আমায় শাসন করবে, আদর করবে। সে পর্যন্ত ভালো থেকো মা। আমরা তোমাকে অনেক ভালোবাসি। তোমায় মা দিবসের শুভেচ্ছা পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ‘মা’!

ইতি-
তোমার ছোট্ট রুহি!