ঢাকা, ৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
shodagor.com

জমজমাট সিরিজে ছক্কার রেকর্ড

প্রকাশিত: সোমবার, মার্চ ২৯, ২০২১ ৫:২৬ পূর্বাহ্ণ  

| পিবিএন ডেস্ক

রোববার শেষ হলো ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার প্রায় দুই মাস ধরে চলা চার টেস্ট, পাঁচ টি-টোয়েন্টি ও তিন ওয়ানডের পূর্ণাঙ্গ সিরিজ। যেখানে টেস্ট সিরিজে ৩-১, টি-টোয়েন্টিতে ৩-২ ও ওয়ানডে ২-১ ব্যবধানে জিতেছে ভারত। কোনো সিরিজ না জিতলেও মাঠের পারফরম্যান্সে জমজমাট লড়াই উপহার দিয়েছে সফরকারী ইংল্যান্ড।

যার সবচেয়ে সেরা ম্যাচটা ছিল রোববার রাতেই। পেস বোলিং অলরাউন্ডার স্যাম কারানের ক্যারিয়ারসেরা ব্যাটিংয়ে অবিশ্বাস্য এক জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। তবে শেষপর্যন্ত তারা হেরেছে ৭ রানের ব্যবধানে, খুইয়েছে সিরিজ। তবে জমজমাট এ সিরিজে দুই দল মিলে ভেঙে দিয়েছে ছক্কার রেকর্ড। এছাড়া এ সিরিজে হয়েছে নানান কীর্তি ও রেকর্ড।

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে দুই মিলে হাঁকিয়েছে মোট ৭০টি ছক্কা। পাঁচের কম ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে এর চেয়ে বেশি আগে কখনও ছক্কা হয়নি। ২০১৮-১৯ মৌসুমে নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার সিরিজে হয়েছিল ৫৭টি ছক্কা। এবার ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজের প্রথম ম্যাচে ১৮, দ্বিতীয় ম্যাচে ৩৪ ও শেষটিতে ১৮টি ছক্কা হয়েছে।

shodagor.com

ভারতের মাটিতে ইংল্যান্ডের সিরিজ জিততে না পারার খরা লম্বা হলো আরও। সবশেষ ১৯৮৪ সালের পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ভারতকে ৪-১ ব্যবধানে হারিয়েছিল ইংল্যান্ড। এরপর খেলা ৯ সিরিজের একটিতেও জিততে পারেনি ইংল্যান্ড। এর মধ্যে দুইটি সিরিজ ড্র করলেও, পরের সবগুলোই হেরেছে তারা।

রোববারের ম্যাচে ৮ নম্বরে নেমে অপরাজিত ৯৫ রানের ইনিংস খেলেছেন স্যাম কারান। ওয়ানডে ইতিহাসে ৮ নম্বরে নেমে এর চেয়ে বেশি রান করতে পারেনি কেউ। ২০১৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৮ নম্বরে নেমে কারানের স্বদেশি ক্রিস ওকসও করেছিলেন ঠিক ৯৫ রান।

তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটিতে ভারতের পেসাররা করেছে ২৭৬টি বল। যা কি না ওয়ানডেতে ঘরের মাঠে এক ম্যাচে ভারতের পেসারদের করা সর্বোচ্চ বোলিংয়ের রেকর্ড। এর আগে ১৯৮৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে ভারতীয় পেসাররা করেছিল ২৭৬ বল। এছাড়া সবমিলিয়ে এটি ভারতীয় পেসারদের এক ম্যাচে করা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বোলিংয়ের রেকর্ড।

সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে দুই দল মিলে করেছে ৬৫১ রান। দুই দলের মোট পাঁচটি ফিফটি হলেও, সেঞ্চুরির দেখা মেলেনি কোনো। ওয়ানডে ম্যাচে সেঞ্চুরি ছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সম্মিলিত রান এই ৬৫১। এর আগে ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার ম্যাচে কোনো সেঞ্চুরি ছাড়াই হয়েছিল ৬৫৬ রান।

দুই ভারতীয় ওপেনার শিখর ধাওয়ান ও রোহিত শর্মা মাত্র ১৪ ওভারেই গড়েন ১০০ রানের জুটি। যা কি না তাদের ১৭তম শতরানের জুটি। ওপেনিংয়ে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শতরানের জুটির রেকর্ড। সবমিলিয়ে তাদের চেয়ে বেশি শতরানের জুটি রয়েছে আর তিনটি জুটির। এছাড়া জুটি গড়ে ৫ হাজার রানের মাইলফলকও পূরণ করেছেন ধাওয়ান-রোহিত।

রোববারের ম্যাচসহ টানা ৬ ওয়ানডেতে ৩০০+ রানের সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে ভারত। এর আগে ২০১৭ সালে সর্বোচ্চ টানা পাঁচ ম্যাচে ৩০০+ রান করেছিল তারা। এবার ২০১৯ সালে ইংল্যান্ডের টানা সাত ম্যাচে করা ৩০০+ রানের রেকর্ড ছোঁয়ার কাছে পৌঁছে গেছে ভারত।

এবারের ভারত সফরে সবমিলিয়ে ১০টি টস জিতেছে ইংল্যান্ড। যা কি না সফরকারী কোনো দলের যৌথভাবে সর্বোচ্চ টস জেতার রেকর্ড। এর আগে ১৯৯৮-৯৯ মৌসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ১০টি ম্যাচে টস জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া।

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস ও মতামত কলামে লিখতে পারেন আপনিও – pbn.news24@gmail.com ইমেইল করুন  

সর্বশেষ

জনপ্রিয় সংবাদ