১০ই আগস্ট, ২০২০ ইং, সোমবার

পাবনায় বেড়েছে পদ্মা-যমুনা সহ বিভিন্ন নদ-নদীর পানি

আপডেট: জুলাই ২৩, ২০২০

| পিবিএন রিপোর্ট

মোঃফাহিম মোন্তাছির মামুন, পাবনা প্রতিনিধি: টানা বর্ষনে পাবনায় বেড়েছে পদ্মা-যমুনা সহ বিভিন্ন নদ-নদীর পানি।ফলে যত দিন যাচ্ছে ততোই প্লাবিত হচ্ছে নিম্ন অঞ্চলের বাড়ি ঘর সহ ফসলি জমি।

এতে করে পাবনার সুজানগর ও বেড়া উপজেলায় দেখা দিয়েছে ব্যাপক নদী ভাঙন। তবে বিভিন্ন মাধ্যম ব্যাবহার করে নদী ভাঙন রোধ চেষ্টা করছে পাবনা পানি উন্নায়ন বোর্ড। পানি বৃদ্ধিতে পদ্মা,যমুনা ও বড়াল পাড়ের নিম্ন অঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।পানি বন্দী হয়েছেন অর্ধ লক্ষাধিক মানুষ।

পাবনা পানি উন্নায়ন বোর্ডের উপ সহকারী প্রকৌশলী মোফাজ্জল হায়দার জানান, নগর বাড়ি ফেরী ঘাট পয়েন্টে যমুনা নদীর পানি বিপদসীমার ৬৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।পাকশী লালন শাহ ব্রীজ পয়েন্টে পদ্মার পানি বিপদসীমার .৮৮ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পাবনার বেড়া উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের প্রায় ২৫ টি গ্রাম নতুন করে প্লাবিত হয়েছে।
সুজানগর উপজেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,ফসলি জমি সহ প্রায় সব কয়টি ইউনিয়ন পানিতে প্লাবিত হয়েছ। বন্যার পানিতে রাস্তাঘাট তলিয়ে যাওয়ায় ও ঘরে পানি ঢোকায় মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছে। গ্রামের উঁচু রাস্তায় রাখা হয়েছে গবাদি পশু।

ভাঙ্গুড়া উপজেলার ভাঙ্গুড়, অষ্টমনিষা,খাঁনমরিচ ও দিলপাশা ইউনিয়নের গ্রামীণ রাস্তাগুলো ডুবে গেছে।পানি বন্দি হয়ে পড়েছে কয়েকশো পরিবার।শুধু ভাঙ্গুড়া উপজেলা তেই ৪৫০ হেক্টর জমির ফসল নষ্টো হয়েছে।

এ দিকে আটঘরিয়া উপজেলা কৃষি প্রধান এলাকা মাজপাড়া ইউনিয়। তবে ছোট বড় বিলে পুকুর হওয়াতে নিম্ন অঞ্চলের পানি বের হতে পারছে না। এতে করে তারা স্বাভাবিক ভাবে চলাফেরা করতে পারছে না।এ বিষয়ে তারা সরাসরি সহায়তা চেয়েছেন।