ঢাকা, ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
shodagor.com

পিরান খানের `অভিমান’ দিয়ে নতুনভাবে পথচলা তরুণ অভিনেতা ইমদাদুলের

প্রকাশিত: শুক্রবার, এপ্রিল ৯, ২০২১ ৫:০৯ অপরাহ্ণ  

| পিবিএন ডেস্ক

ফয়সাল হাবিব সানি, বিনোদন প্রতিবেদক: খুব অল্প বয়সেই অসাধারণ অভিনয় দক্ষতা, মেধা আর যোগ্যতা দিয়ে দর্শকদের মনে স্থান করে নিতে চলেছে এ সময়ের তরুণ ফিল্মমেকার, অভিনেতা এবং ভ্রমণপিপাসু স্বপ্নবাজ তরুণ ইমাদাদুল হক। সম্প্রতি, দেশের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী পিরান খানের গানে মডেল হয়েছেন ইমদাদুল হক এবং জেরিন এন্নেশা। `অভিমান’ শিরোনামের এই গানটির কথা লিখেছেন নিজামুদ্দিন রনি এবং সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন পিরান খান নিজেই। আর গনাটির মিউজিক ভিডিও নির্মাণ করেছেন শাহ আলম রঞ্জু। তরী এন্টারটেইনমেন্টের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে গত ০৬ মার্চ (শনিবার) গানটি প্রকাশ করা হয়।

গানটির মিউজিক ভিডিও প্রসঙ্গে ইমদাদুল হকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি পিবিএন টোয়েন্টিফোর ডট কমকে জানান, `গানটির কথা আমার অত্যন্ত ভালো লেগেছে। এর আগেও পিরান খানের কণ্ঠে গাওয়া `বেস্ট ফ্রেন্ড-৩’ নাটকের `অভিমান’ শিরোনামের গানটি তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছে এবং গত ০১ মাসে গানটি `সিডি চয়েজ’- এর অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রায় ০২ কোটি মানুষ দেখেছেন এবং শ্রবণ করেছেন৷ আমার অভিনীত এই গানটিও `অভিমান’ শিরোনামেই তরী এন্টারটেইনমেন্টের ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রকাশিত হয়েছে। দুটি গানের শিল্পী পিরান খান হলেও গান দুটির কথা একটি অন্যটির থেকে সম্পূর্ণ আলাদা। ইতোমধ্যেই গানটি থেকে দর্শকদের বেশ ভালো রেসপন্স পাচ্ছি। আশা করি, সামনে আরও ভালো কিছু নিয়ে দর্শকশ্রোতাদের সামনে নিজেকে হাজির করতে পারব।’

প্রসঙ্গত, অভিনয়ের পাশাপাশি একজন ভ্রমণপ্রিয় স্বপ্নবিলাসী তরুণও ইমদাদুল হক। এ যাবৎ বেশকিছু দেশ ভ্রমণের অভিজ্ঞতাও রয়েছে তার। বাংলাদেশেরও অনেক আকর্ষণীও ও দর্শনীয় স্থান ভ্রমণ করেছেন ইতোমধ্যে। ভ্রমণের এই অভিজ্ঞতাকেই বাস্তবজীবনে কাজে লাগাতে চায় ইমদাদুল। ভ্রমণের পাশাপাশি শর্টফিল্মেও বেশ ঝোঁক রয়েছে তার। আর তার ভাষ্যমতে, এই ঝোঁকের সূত্রপাত ঘটেছে তার স্মৃৃৃৃতিমমুখর শৈশবকালেই।

shodagor.com

তার সাথে কথা বলে আরও জানতে পারা যায় যে, দেশের বন্দর নগরী খ্যাত চট্টগ্রামে তার বেড়ে ওঠা। খুব অল্প বয়স থেকেই চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমিতে মঞ্চ নাটক করতেন তিনি৷ এরই ধারাবাহিকতায় তিনি নিজের ফিল্ম প্রোডাকশন ইমদাদুল হক ফিল্মস নিয়ে কাজ করা শুরু করেন। তিনি এ পর্যম্ত বেশকিছু শর্টফিল্ম নির্মাণ করেছেন এবং তাতে দক্ষতার সঙ্গে অভিনয়ও করেছেন। বলা যায়, তিনি পুরোদমে একজন পুরোদস্তুর অভিনেতাও বটে। তাছাড়া, দর্শকমহলেও বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে তার নির্মিত শর্টফিল্মগুলো। তার উল্লেখযোগ্য শর্টফিল্মগুলোর মধ্যে রয়েছে `বাবা’, `চাইল্ড লেবার’, `কথা দিলাম’, `সুইসাইড’ প্রভৃতি।

আমাদের স্বপ্নবিলাসী মন সর্বদা নতুন নতুন নতুন স্বপ্ন ও উদ্ভাবনের নেশায় থাকে উন্মত্ত, উদগ্রীব। ইমদাদুল হকও একজন স্বপ্নবাজ তরুণ। স্বপ্ন দেখে ভ্রমণ করে বিশ্বের খুটিনাটি জ্ঞান অন্বেষণের; একদিন নিজের দেশকে অন্যন্য উচ্চতায় দেখতে চান তিনি৷ তিনি বাস্তবতাকে প্রধান উপজীব্য করে মানুষের জন্য শর্টফিল্ম তৈরি করতে চায়। তার শর্টফিল্মগুলো একদিকে যেমন রূঢ় বাস্তবতার শরীরে কুঠারাঘাত করে, অন্যদিকে তেমনিভাবে জীবনের গভীর বোধের উন্মেষেও প্রতিভাসিত তার বিভিন্ন শর্টফিল্ম। কল্পনার জগত থেকে বেরিয়ে তিনি তার শর্টফিল্মগুলোতে জীবন সংগ্রামের অতীব চিরন্তন সত্যকেই বারবার যেন ধারণ করে চলেছেন। স্বপ্ন দেখেন, একদিন বাংলাদেশেও অনেক উচ্চমানের শর্টফিল্ম তৈরি হবে আর বাংলাদেশ ফিল্ম ইন্ড্রাস্ট্রিও হয়ে উঠবে অন্যান্য দেশের জন্য অনুপ্রেরণার প্রধানতম কেন্দ্রবিন্দু। নিজের দেশ মাথা উঁচিয়ে সারা বিশ্বের সামনে একদিন সগৌরবে দাঁড়াবে এমনটাই দেখে যাবার আমৃত্যু প্রত্যাশা ইমদাদুলের।

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস ও মতামত কলামে লিখতে পারেন আপনিও – pbn.news24@gmail.com ইমেইল করুন  

সর্বশেষ

জনপ্রিয় সংবাদ