১০ই আগস্ট, ২০২০ ইং, সোমবার

রাজারহাটে বিদ্যানন্দের গাবুরহেলানে নদী ভাঙ্গন থেকে মুক্তির জন্য মানববন্ধন

আপডেট: জুলাই ২৩, ২০২০

| পিবিএন রিপোর্ট

মোঃ মোশাররফ হোসেন রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : বৃহস্পতিবার ২৩ জুলাই ২০২০ (খ্রিস্টাব্দ) কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের গাবুরহেলানে বন্যা হলে বাড়িঘর ডুবে যাওয়া ও নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা পেতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মানববন্ধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অত্র ইউনিয়নের বিভিন্ন রাজনৈতিক সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ।

মানববন্ধন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দান কালে বক্তারা বলেন – আমাদের গাবুরহেলানের এই ক্রস বাঁধ টির বয়স ৪০ বছর। এতো পুরনো ক্রস বাঁধ এই এলাকায় আর নেই । দুদিন আগেও এখানে কাজের ধরন ছিল চোখে পড়ার মতো।

আমরা ধরে নিয়েছিলাম বুড়ির হাটের মতো এই বাঁধটি ভেঙ্গে যাবেনা। কিন্তু কিছু অসাধু লোকের অবহেলার কারণে বুড়ির হাট ক্রস বাঁধের মতোই ভেঙে গেছে পুরো বাঁধ। বাঁধের দুই ধারে থাকা চারটি বাড়িও ইতোমধ্যে নদীতে চলে যায় ।

বাঁধের অবশিষ্ট অংশটুকু রক্ষার জন্য আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করছি উনি যেন তা রক্ষা করেন। এই বাঁধটি মায়ের মতো আগলে রেখেছে উজান ও ভাটিতে চারটি গ্রাম, মসজিদ, মাদ্রাসা ও একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

এলাকাবাসী অভিযোগ এনে বলেন – আগেরদিন আমাদের প্রতিশ্রুতি দিলেন যতগুলো জিও ব্যাগ এখানে প্রয়োজন আমরা বরাদ্দ দিবো, পরেরদিন ব্যাগের জন্য আমরা যোগাযোগ করলে তারা বলেন – ওখানকার জন্য বরাদ্দ নেই।

তারা বলেন এখানে কোন অদৃশ্য ব্যক্তির কারনে কাজের গাফিলতি হচ্ছে তাঁকে খুজে বের করে আইনের আওতায় আনা হোক। আমরা এলাকাবাসী তার শাস্তির দাবি করছি।

উল্লেখ্য অতিবৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে দফায় দফায় বন্যা ও নদী ভাঙ্গনে নিঃস্ব হয়ে গেছে বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের অধিকাংশ জনগোষ্ঠী। প্রতিবছর নদী ভাঙ্গনে কমে যাচ্ছে আবাদি জমি। বন্যায় তলিয়ে যায় শত শত একর ফসলের মাঠ আর ক্ষতিগ্রস্ত হয় সাধারণ কৃষক।

অনুন্নত এলাকা হওয়ায় শিক্ষা থেকে পিছিয়ে পড়া বিদ্যানন্দের দিকে যেন কারুরই নজর পড়ছেনা। শিক্ষা চিকিৎসা ও খাদ্যে অ স্বয়ংসম্পূর্ণ এই এলাকাটিকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এখন সময়ের দাবী ।