৫ই জুলাই, ২০২০ ইং, রবিবার

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে চোরের আতঙ্কে লোকজন

আপডেট: জুন ২৯, ২০২০

| পিবিএন রিপোর্ট

ফরিদ আহমদ শিকদার,নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলায় করোনা ভাইরাসের কারনে সচেতনতার লক্ষ্যে, প্রশাসন কতৃক বিভিন্ন স্থানে লকডাউনের সুযোগে চোরেরা বেপরোয়া হয়ে আতঙ্কে স্থানীয় লোকজন।

শনিবার (২৭শে জুন) দিবাগত রাত্রে নবীঞ্জের বাগাউড়া গ্রামের ইলামপাড়ায় দুঃসাহসিক চুরি ঘটনা ঘটে ৷ এতে চোরেরা সিয়াম আহমদ বসত ঘরের দরজার সামনের ইটের নিচ দিয়ে সিঁদ কেটে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে। পরে ষ্টীলের আলমারির তালা ভেঙ্গে ফেলে নগদ দশ হাজার টাকা, দামী ব্রান্ডের দুইটি মোবাইলসেট
,রুপার দুইটি চেইন,ব্রেসলেট অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ জিনিসপত্রসহ প্রায় ৪০ হাজার টাকার মালামাল নিয়ে যায়।

সিয়াম আহমেদ বলেন, ‘রবিবার রাত্রে আনুমানিক ২ টা থেকে ৩ টার ভিতরে চুরি হয়,আমি আমার মা,খালা,নানী, খালাত ভাই সহ পাঁচজন মানুষ চুরি হওয়া ঘরটিতে গভীর ঘুমে মগ্ন ছিলাম আমরা কোন কিছু টের পাওয়ার আগেই চুরের দল চুরি করে পালিয়ে যায়।রাত তিনটার পর হটাৎ যখন ঘুম ভাঙ্গে তখন দরজার সামনে সিঁদ কাটা অবস্থায় পাই এবং আলমারির খোলা অবস্থায় পাই।তখনই বুঝতে পারি ঘরে চোর প্রবেশ করছে।’

বিভিন্ন সূত্রে থেকে জানা যায়, গত এক মাস পূর্ব থেকে চোরেরা বেপরোয়া হয়ে উঠছে! তারা রাতের এক জোট হয়ে নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের দেওতৈল গ্রামের ক্বারী আব্দুল কাইয়ুুম এর ২টি গরু নিয়ে যায়, যার মূল্য প্রায় ৭০ হাজার টাকা, দরবেশপুর গ্রামের তালেব উল্লাহর ২টি গরু যার মূল্য ৭০ হাজার টাকা ও ৪০ হাজার টাকা।

টিটু মিয়া আরো ১টি গরু, মিঠাপুর গ্রামের হতদরিদ্র অনকুল সরকার এর ১টি গরু যার মূল্য প্রায় ৫০ হাজার টাকা এবং বকুল সরকারের ১টি ছাগল যার মূল্য ৫ হাজার টাকা এবং গত রাতে সৌদি আরব প্রবাসী গুপাল দেবনাথ ঘরের পিছনের একটি টিবওয়েল খুলে নিয়ে যায় চুরচক্ররা। যার মূল্য প্রায় ৫/৬ হাজার টাকা।সচেতন মহলের লোকজন প্রশাসনের সু- দৃষ্টি কামনা করছে।